লগইন
রেজিস্টার
সবসময় আপনার পাশেই

সবসময় আপনার পাশেই

আপনার চাহিদা পূরণে-আমরা একটি পরিবার সম্পূর্ণ নিবেদিত। সেই লক্ষ্যে অবিচল থাকার কারনেই আমরা বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ এবং নেতৃস্থানীয় এফএমসিজি কোম্পানিতে পরিণত হতে পেরেছি এবং বিশ্বের প্রায় ১৩ টি দেশে আমাদের পণ্য রপ্তানি হয়।

স্কয়ার সঠিকতা এবং পরিপূর্ণতায় গুরুত্ত প্রদানের মাধ্যমে গুনগত মান নিশ্চিত করে।

প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান এর পরিলেখঃ-

স্যামসন এইচ চৌধুরী , বাংলাদেশের একজন কিংবদন্তি উদ্যোক্তা, তিনি ১৯২৫ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। ইন্ডিয়া থেকে লেখাপড়া শেষ করে পূর্ব পাকিস্তানে ফিরে এসেছিলেন এবং পাবনা জেলার আতাইকুলা গ্রামে বসবাস স্থাপন করেছিলেন। যেখানে তার বাবা বহিঃবিভাগের ঔষাধালয়ে একজন মেডিকেল অফিসার হিসেবে কাজ করতেন।

১৯৫২ সালে তিনি আতাইকুলা গ্রামে এক ছোট ঔষাধালয় আরম্ভ করেছিলেন যা ঢাকা থে ১৬০কিঃ মিঃ দূরে বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিমে অবস্থিত। ১৯৫৮ সালে স্যামসন এইচ চৌধুরী তার তিন বন্ধুর সাথে অংশীদারি সমন্বয়ে ঔষধ প্রতিষ্ঠান আরম্ভ করেন। স্যামসন এইচ চৌধুরী পাঁচ দশক ধরে সৃষ্টি করেন স্কয়ার গ্রুপ যা বাংলাদেশের সব থেকে বড় প্রতিষ্ঠানের মধ্যে একটি।

যখন জিজ্ঞেস করা হতো কেন স্কয়ার নামটি মনোনীত করা হয়েছিলো তিনি বলতেন, “ আমরা এর নাম দিয়েছি স্কয়ার কারন এটি শুরু হয়েছিলো চার বন্ধুকে নিয়ে এবং এর তাৎপর্যপূর্ণ অর্থ হচ্ছে সঠিক এবং পরিপূর্ণ গুনাবলী। ” যেমনটি তারা অঙ্গীকার করেছিলেন গুনগত মান সম্মত পণ্য তৈরি করতে। বর্তমানে সেই ১৯৫৮ সালের ছোট প্রতিষ্ঠানটি একটি পাবলিক তালিকাভুক্ত গ্রুপ অফ কোম্পানি যেখানে বর্তমানে ৩৬,০০০ এরও বেশি কর্মচারী রয়েছে। ২০১১ সালের হিসেব মতে ৮০০ মিলিয়ন ইউ এস ডি ব্যবসায়ে বিনিয়োগ রয়েছে।

স্কয়ার শুধু একটি নামই না, গুনগত মানের সমার্থক যেমন ঔষধ, হাসপাতাল, টেক্সটাইল, প্রসাধন, ভোগ্য পণ্য, ভেষজ ঔষধ, কৃষি ও গবাদি চিকিৎসক পণ্য, তথ্য প্রযুক্তি, বিজ্ঞাপন সংস্থা এবং আরও কয়েকটি উদ্যোগে।

 

তার শিষ্যদের কাছে স্যামসন এইচ চৌধুরী একজন আদর্শ, তার সমসাময়িক সময়ে একজন প্রতিমা, তরুন উদ্যোক্তাদের কাছে একজন পরামর্শদাতা এবং ব্যবস্থাপকদের কাছে তিনি একজন বিস্ময়কর সততার প্রতীক। ব্যবসায়িক ক্ষেত্রে সবসময় মানুষের কল্যাণকে ব্যবসার মূল বিবেচ্য হিসেবে গন্য করা তাকে দেশের অনান্য ব্যাবসায়িকদের থেকে আলাদা করে তুলেছে। এমনকি তার প্রতিষ্ঠানে কোন শ্রমিক অসন্তুষ্টির ঘটনা কখনই পাওয়া যায়নি। দীর্ঘ সময় ধরে তিনি ছিলেন দেশের সবচেয়ে করপ্রদানকারী ব্যক্তি।

স্যামসন এইচ চৌধুরী কঠোর পরিশ্রম, লক্ষ্য, স্বচ্ছতা এবং দূরদর্শী হিসেবে উন্নয়নশীল দেশের এক বিরল প্রতীক হয়ে রয়েছেন। স্যামসন এইচ চৌধুরী ২০১২ সালের ৫ই জানুয়ারি মৃত্যুবরণ করেন যা সত্যিই একটি যুগের পরিসমাপ্তি।

আমরা স্বতন্ত্র এক জাতিসত্তার অধিকারী

আপনার মতোই স্বতন্ত্র

আমরা একক জাতীয়তায় বাস করি। আমাদের প্রতিটি পদক্ষেপেই মিশে আছে অনুকরণীয় সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য, আমাদের মাতৃভাষার জন্য ভালবাসা, আমাদের গৌরবময় স্বাধীনতা যুদ্ধ যা একমাত্র আমাদেরই। আমাদের এই অতুলনীয় বৈশিষ্ট্য আমাদের প্রত্যেকের সম্প্রীতি, উদ্যম, চাহিদা, স্বপ্ন ও আশার মূলে গেঁথে আছে। আমরা বিশ্বাস করি নিজস্ব এবং জাতীয় উভয় ক্ষেত্রেই স্বতন্ত্রতার গুরুত্ব। বাংলাদেশের সবচেয়ে প্রশংসিত গ্রুপ হিসেবে, আমাদের উন্নত মানের পণ্য এবং পরম আন্তরিকতার মধ্যমে আমরা অর্জন করেছি অভিজ্ঞতা এবং আপনার প্রত্যাশা পূরণে আমরা সর্বদা ব্যগ্র। আপনার চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে আমরা আপনাকে অনন্য হিসেবে বিবেচনা করেছি এবং তা পূরণের জন্য আমাদের রয়েছে অনন্য এবং আন্তরিক কর্মী। শুধুমাত্র আপনার জন্য, “ আপনার মতো অনন্য ” হওয়ার জন্য আমরা নিরলসভাবে চেষ্টা করে যাচ্ছি।

আমরা ভোক্তাদের স্বতন্ত্র চাহিদা নির্ণয় করে এবং পরবর্তীতে পণ্যের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় চাহিদা নিরসনের প্রচেষ্টা করি।

লক্ষ্য উদ্দেশ্য

লক্ষ্য

আমরা ভোক্তার অনন্য চাহিদাগুলো বুঝতে চেষ্টা করি এবং সেই চাহিদাগুলোকে স্বকীয় উপায়ে পণ্যে পরিনত করি যা নিশ্চিত করে উন্নত মান, উচ্চ সেবা এবং সাশ্রয়ী মূল্য।

উদ্দেশ্য

  • ভোক্তাকে বুঝতে পারা আমাদের অন্যতম মুল্যবান সম্পদ এবং ভোক্তার নানবিধ প্রয়োজনীয়তা বুঝে সর্বোচ্চ সন্তষ্টি প্রদানে প্রতিনিয়ত পরিশ্রম করা।
  • কঠোরভাবে গুনগত মান নিশ্চিত করে ভোক্তাকে সাশ্রয়ী মুল্যে পণ্য প্রস্তাব করা। প্রতিনিয়ত গবেষণা উন্নয়ন এবং নতুন আবিষ্কারের মাধ্যমে আমারা তৈরি করছি আন্তর্জাতিক মানের পণ্য।
  • কাজের অনুকূল পরিবেশ বজায় রাখার জন্য আমরা আমাদের নিজস্ব সম্পদ তৈরি করে নিয়েছি আর তা হচ্ছে আমাদের মানুষ, আমাদের উচ্চ প্রেরণা এবং সন্তুষ্টি।
  • সরকার ও সমাজের প্রতি আন্তরিকভাবে দায়িত্ব পালনের জন্য নৈতিকতা বজায় রাখা। সেই সাথে অপকর্ম, পরিবেশ বিরোধী আচরণ, অনৈতিক এবং দুর্নীতিগ্রস্ত লেনদেন থেকে বিরত থাকার সর্বোচ্চ চেষ্টা করা।

স্কয়ার আজ মানুষের আস্থার এক প্রতীক

ঐতিহ্যঃ

বর্তমানে স্কয়ার হচ্ছে একটি মনের অবস্থার প্রতীক। ১৯৫৮ সালের শুরু যখন স্কয়ার গ্রুপের প্রধান কোম্পানি স্কয়ার ফারমাসিটিক্যালস প্রতিষ্ঠিত হয় তখন থেকে গত পঞ্চাশ বছর কঠোর পরিশ্রমের দ্বারা আবেগ এবং প্রতিশ্রুতি অর্জনের মাধ্যমে আমরা বর্তমানে এসেছি। বর্তমানে স্কয়ার গ্রুপ দ্রুত বেড়ে চলেছে এবং বাংলাদেশ এর সর্বোচ্চ চূড়ায় পৌছে গেছে। 

স্কয়ার টয়লেট্রিস লিমিটেড একটি পণ্য দিয়ে স্কয়ার ফারমাসিটিক্যালস এর একটি আলাদা বিভাগ হিসেবে ১৯৮৮ সালে যাত্রা শুরু করে। 

১৯৯৪ সালে স্কয়ার টয়লেট্রিস লিমিটেড একটি প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানিতে পরিনত হয়। 

বর্তমানে স্কয়ার টয়লেট্রিস লিমিটেড আন্তর্জাতিক মানের প্রসাধনী এবং সৌন্দর্যবর্ধক পণ্যের ২০ টি ব্রান্ড এবং ৫০ টি পণ্য উৎপন্ন করছে। এসব পণ্য ব্যবহৃত হচ্ছে ত্বকের যত্ন, চুলের যত্ন, শিশু যত্ন, পোশাক সামগ্রী যত্ন, পুরুষদের প্রসাধনী ইত্যাদি ক্ষেত্রে।

স্কয়ার টয়লেট্রিস লিমিটেড এর ব্যবসা পরচালিত হচ্ছে যত্ন এবং ঐতিহ্যের ছোয়া দিয়ে। যেমনঃ

  • স্কয়ার টয়লেট্রিস লিমিটেড গবেষনা করেছে স্ত্রীরোগ মাসিকের উপর এবং প্রচার করা হয়েছে সেনোরা ব্র্যান্ডের মাধ্যমে যা সফলভাবে গ্রহণযোগ্যতা পায় বাবা মা এবং শিক্ষকদের কাছে। সবার কাছে মাসিকের স্বাস্থ্যবিধি, জ্ঞান এবং বাল্যবিবাহ প্রতিরোধের শিক্ষা পৌছে দাওয়ার পাশাপাশি ডাক্তারদের সাথে সরাসরি কথা বলার ক্ষেত্রে অনিচ্ছুক কিশোরীদের জন্য তৈরি করা হয় FAQ হেল্পলাইন।
  • স্কয়ার টয়লেট্রিস লিমিটেড বাংলাদেশের ঐতিহ্যকে লালন করে। লোক বাউল সংগীতকে উজ্জীবিত করার জন্য ২০১৪ সালে আয়োজন করা হয় “ম্যাজিক বাউলিয়ানা” প্রতিযোগিতা।
  • মেরিল স্প্লাশ এর অধীনে স্কয়ার টয়লেট্রিস লিমিটেড একটি কল সেন্টার চালু করেছে যেখানে মহিলারা সরাসরি ডাঃ মেহেতাব খানম এর সাথে মনস্তাত্ত্বিক বিষয়ক পরামর্শ নিতে পারেন। 

মূল ব্যবসার পাশাপাশি স্কয়ার টয়লেট্রিস লিমিটেড সক্রিয়ভাবে বিভিন্ন মানবপ্রেমি কার্যক্রম যেমন কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা, গরীব এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগে আক্রান্ত ব্যাক্তিদের আর্থিক সহয়তা প্রদান, এসিড ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্য করা, বৃক্ষ রোপণ, সবার মাঝে স্বাস্থ্য এবং পরিচ্ছন্নতার ব্যাপারে সচেতনতা বৃদ্ধি, লেখা পড়ায় সহযোগিতা এবং বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকে।

বোর্ড কর্তৃক প্রয়োজনীয় ও পর্যাপ্ত কর্তৃত্ব অর্পণ করা হয়েছে এমডি ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পরিচালনার ওপর ।

কর্পোরেট গভর্নেন্স

পরিচালনা পর্ষদ

ব্যবসায়িক প্রক্রিয়া এবং অর্থনৈতিক অবস্থানের উপর একটি ত্রৈমাসিক প্রতিবেদন পরিচালনা পর্ষদ এর কাছে দেয়া হয় পর্যালোচনার জন্য, পরবর্তীতে কার্যনির্বাহী ব্যবস্থাপকের মাধ্যমে বাস্তবায়নের জন্য। প্রতি মাসে সকল বিভাগের প্রধানের সমন্বয়ে একটি সভার আয়োজন করা হয় যেখানে অগ্রাধিকার বিষয় এবং সমস্যার সমাধান সম্পর্কে আলোচনা করা হয়।

কার্যনির্বাহী ব্যবস্থাপক

কার্যনির্বাহী ব্যবস্থাপক গঠিত হয় পরিচালনা পরিচালক এবং প্রধান কার্যনির্বাহী অফিসার দ্বারা যাকে বোর্ড অফ ডিরেক্টর থেকে প্রয়োজনীয় ক্ষমতা প্রদান করা হয়ে থাকে। কার্যনির্বাহী ব্যবস্থাপক কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা অনুযায়ী প্রতিটি স্তরের কাজ পরিচালনা করেন । বিভিন্ন পরিকল্পনা এবং উপ-পরিকল্পনা প্রস্তুতি, প্রতিটি পণ্য এবিং সেবার লাভ ও বাজেট নির্ণয়, বিভিন্ন ব্যাতিক্রমধর্মী কাজ সম্পাদনের জন্য কার্যনির্বাহী ব্যবস্থাপক দায়িত্বপ্রাপ্ত। প্রতিটি দলগত উদ্যোগের দ্বারা ব্যবস্থাপক পরিচালকের মাধ্যমে এই কাজগুলো পরিচালিত হয়ে থাকে।

সমাজের কল্যাণে কাজ করা আমাদের প্রধান বাধ্যবাধকতা।

মূল্যবোধ ও মূলনীতি

ভোক্তার সুবিধা, কর্মচারী এবং সমাজ এই তিনটি স্কয়ার টয়লেট্রিস লিমিটেড এর মূল্যবোধ ও মূলনীতি এর মূলভিত্তি। স্কয়ার টয়লেট্রিস লিমিটেড বিশ্বাস করে যে, সমাজের সুবিধার্থে কাজ করা তাদের প্রধান দায়িত্ব। একটি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান হওয়া সত্ত্বেও স্কয়ার টয়লেট্রিস লিমিটেড সবসময় লাভের দিকেই নজর দেয় না বরং সমাজ এর প্রতি তার অঙ্গীকারগুলো পূরণের লক্ষ্যে আরও চেষ্টা করে। গুনগত মান এর নীতি অনুযায়ী প্রতিদিন প্রতিটি কাযেই এই মূল্যবোধ ও মূলনীতিগুলো প্রতিফলিত হয়।

গুনগত মান এর নীতি

  • ভোক্তা চাহিদা বুঝে সর্বাধিক সন্তুষ্টি প্রদান এবং বাজারে নেতৃত্ব অর্জনের জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করা ।
  • ক্রমাগত উৎপাদন প্রযুক্তি উন্নত করা এবং ISO 9001: 2008 আন্তর্জাতিক মানের সাথে সংগতিপূর্ণ মানের ব্যবস্থা করা ।
  • প্রতিনিয়ত কর্মী প্রশিক্ষণ এবং কাজের অনুকূল পরিবেশ বজায় রাখার মাধ্যমে গুনগতমান অর্জনে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ।

অঙ্গসংগঠন

স্কয়ার গ্রুপ তার প্রতিটি কোম্পানির সদস্যবৃন্দকে যত্ন এবং দায়িত্ব এর সাথে আটকে রেখেছে।

স্কয়ার হাসপাতাল লিমিটেড.

স্কয়ার গ্রুপের একটি অংপ্রতিষ্ঠান স্কয়ার হাসপাতাল লিমিটেড একটি ৩০০ শয্যার হাসপাতাল। এই হাসপাতালটি Methodist Healthcare, Memphis, Tennessee, USA; Christian Medical College-Vellore, India; এবং Care IVF (In-vitro fertility centre) Centre, Singapore এর অধিভুক্ত পার্টনার। স্কয়ার হাসপাতালের লক্ষ্য হচ্ছে বাংলাদেশ, দক্ষিন ও দক্ষিন-পূর্ব এশিয়ার মানুষের কাছে উন্নত স্বাস্থ্যসেবা, সমগ্র ক্লিনিকাল সেবা, চিকিৎসা ও শুশ্রূষা, শিক্ষা এবং গবেষনার মাধ্যমে সবার পছন্দের জায়গায় পৌছানো। হাসপাতালটি ঢাকার কেন্দ্রে অবস্থিত এবং এর লক্ষ্য হচ্ছে ঢাকার বৃহত্তর অংশে পৌছানো। বর্তমানে এটা পান্থপথ দুপাশে একটি ওভার ব্রিজ দ্বারা সংযুক্ত দুটি ভবন দ্বারা গঠিত । প্রধান হাসপাতাল বিল্ডিংটি ১৮ তালা উঁচু এবং প্রায় ৪,৫০,০০০ স্কয়ার ফিট। দ্বিতীয় বিল্ডিংটি মূল রাস্তার কাছাকাছি অবস্থিত যা ১৬ তালা উঁচু এবং প্রায় ১,৩৬,০০০ স্কয়ার ফিট। দুটি বিল্ডিংই US Fire and Building safety standards. মেনে তৈরি করা হয়েছে। ৬০ টি পরিক্ষিত রুমের মাধ্যমে গঠিত হাসপাতালের বহিঃবিভাগ প্রতিদিন ১২০০ রোগীর সেবা প্রদান করে। সর্বোত্তম স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার জন্য বহির্বিভাগ, জরুরী এবং ভর্তিকৃত রোগীদের উপর নিবিড়ভাবে পরযবেক্ষন রাখা হয়.
আরও পড়ুন

স্কয়ার হারবাল এন্ড নিউট্রাসিটিক্যালস লিমিটেড.

বাংলাদেশের ঔষধ ক্ষেত্রে একটি নতুন যুগের সৃষ্টি করতে. স্কয়ার হারবাল এন্ড নিউট্রাসিটিক্যালস লিমিটেড একটি দৃঢ় অঙ্গীকারযুক্ত প্রথম স্বাস্থ্যসেবা সত্তা । ইতিমধ্যে আমরা পূর্ব ও পশ্চিম এর স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীদের আস্থা অর্জন করেছি সর্বোচ্চ মানের বিশুদ্ধ ভেষজ পণ্যের মাধ্যমে । পাশাপাশি আমরা বজায় রেখেছি আন্তর্জাতিক কার্যক্ষমতা এবং নিরাপত্তা । জনপ্রিয়তা এবং নিয়মিত ব্যবহারের মাধ্যমে ভেষজ ঔষধ উন্নত দেশগুলোর মধ্যে একটি বিপ্লব সৃষ্টি করেছে। একটি উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে এটা আমাদের গর্ব যে আমাদের দেশীয় ও আন্তর্জাতিক উভয় ব্যবহারের জন্যই বিশ্বমানের ভেষজ পণ্য রয়েছে এবং তা আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় ছড়িয়ে দেয়া হয়েছে। এগুলোর মধ্যে রয়েছে –
- কাশি ও কফ নিরামায়ক
- হেপাটাইসিস প্রতিষেধক.
- সি এন এস ও বিষন্নতা দূরীকরণ.
- এডাপ্টজেন ও ইমিউনোমডুলেটর.
- ভিটামিন ও মিনারেল সরবরাহকারী.
- হেমাটিনিক
- গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল
- হরমোন।
প্রাকৃতিক ঔষধ এর পাশাপাশি স্কয়ার হারবাল এন্ড নিউট্রাসিটিক্যালস লিমিটেড এর অধিনে আমরা উদ্বোধন করেছি ঐতিহ্যবাহী আয়ুর্বেদীয় ওষুধ। এটা আমাদের অহংকার যে আমরা একটি অত্যাধুনিক উপস্থাপনার সাথে একটি সর্বাধুনিক পদ্ধতির মধ্য দিয়ে এই ঐতিহ্যবাহী ওষুধটি এনেছি। আমাদের আয়ুর্বেদীয় ঔষধগুলো হচ্ছে শক্তি বর্ধক, পরিপাক স্বাস্থ্য পণ্য, তরল ভিটামিন ইত্যাদি।

স্কয়ার ফুড এবং বেভারেজ লিমিটেড

স্কয়ার ফুড এবং বেভারেজ লিমিটেড একটি সফল স্থানীয় খাদ্য উৎপাদন এবং মার্কেটিং কোম্পানি যা ২০০১ সাল থেকে উন্নত গ্রাহক সেবা, উন্নত প্রযুক্তির ব্যবহার, মানবসম্পদ এর উন্নয়ন, ক্রমাগত উন্নতি এবং নতুন পণ্য প্রবর্তন এর মাধ্যমে দৃঢ়ভাবে উচ্চ মানের পণ্য প্রদান করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। কোম্পানী ২০০৫ সালে আন্তর্জাতিক মান ISO-9001 প্রাপ্ত। সম্প্রতি কোম্পানির খাদ্য নিরাপত্তা ব্যবস্থাপনা জন্য ISO 22000 অধিগ্রহণ করেছে
আরও পড়ুন

স্কয়ার ইনফরমেটিক্স লিমিটেড .

অভ্যন্তরীণ অফিসগুলোর মধ্যে উন্নত মানের ডেটা সংযোগ এর শুন্যতা থেকেই স্কয়ার ইনফরমেটিক্স লিমিটেড অনুপ্রাণিত হয়েছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) খাতে মধ্যে বৈচিত্রপূর্ণ সেবা প্রদান করার। স্কয়ার ইনফরমেটিক্স লিমিটেডই প্রথম ১৬,০০০ VSAT নিয়ন্ত্রন করার ক্ষমতা সম্পন্ন VSAT কন্ট্রোল সেন্টার তৈরি করেছে। যা দেশের ভিতরে এবং বাইরে সবচেয়ে, নিরাপদ, নির্ভরযোগ্য এবং কম খরচ কার্যকর ডাটা কমিউনিকেশন প্রদান করে ।

যোগাযোগ সমাধানগুলো ছাড়াও জটিল নেটওয়ার্ক সলিউশন, ইন্টিগ্রেটেড এন্টারপ্রাইজ রিসোর্স প্ল্যানিং সিস্টেমের স্থাপনার ও কর্পোরেট ইন্টারনেট সার্ভিস প্রদানে স্কয়ার ইনফরমেটিক্স লিমিটেড এর দীর্ঘ অভিজ্ঞতা রয়েছে।
আরও পড়ুন

স্কয়ার টেক্সটাইল লিমিটেড

স্কয়ার ফ্যাশন লিমিটেড

মাছরাঙ্গা কমিউকেশনস লিমিটেড.

মাছরাঙা বাংলাদেশের একমাত্র প্রডাকশন হাউজ যেখানে প্রতি সপ্তাহে ৬ টি পৃথক চ্যানেলে ৮টি ধারাবাহিক নাটকের ১৩ টি পর্ব একসাথে প্রচার করা হয়। এটি বিশ্বের সর্বশেষ উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন ক্যামেরা, নতুন এইচডি এডিটিং সেটআপ, অ্যাপল ম্যাকিন্টোশ G5 ভিত্তিক এডিটিং প্যানেল, চুড়ান্ত এডিটিং এর প্রো সফ্টওয়্যার, 02 HDV VTR ইত্যাদির সমন্বয়ে সজ্জিত। দেশের একমাত্র Sony HVR 1500A, HD-SDI cum DVCAM VCR সাথে AJA KONA 3G capture card এখানে আছে যা যে কোন ধরনের অডিও ভিডিও ইনপুট এবং ওয়েব সাপোর্ট করে এমন আউটপুট প্রদানে সক্ষম।

প্রডাকশন হাউজের পাশাপাশি আমরা মাছরাঙ্গা টেলিভিশনের নামে বাংলাদেশে প্রথম এইচডি প্রযুক্তিভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল চালু করেছি। এই চ্যানেলটি যে কোন ধরনের কুসংস্কারমুক্ত এবং সম্পূর্ণরূপে বাংলা সংস্কৃতি ও আচার-অনুষ্ঠানের উপর ভিত্তি করে পরিচালিত।

মিডিয়াকম লিমিটেড.

এ ছাড়াও আমাদের মিডিয়াকম নামের একটি পূর্ণ বিজ্ঞাপন সেবা প্রদানকারী সংস্থা রয়েছে। যা দেশের সবচেয়ে কৌশল-ভিত্তিক সংস্থা হিসেবে পরিচিত। এর কৌশলগত পরিকল্পনা বিভিন্ন ছোট ব্রান্ডের ব্যবসা এবং খ্যাতিতে নাটকীয় পরিবর্তন এনেছে। আশ্চর্যের কিছু নেই, Mediacom ব্র্যান্ড-ডাক্তার হিসেবেই দেখা যায় । এর কাজের ব্যাপ্তি ছড়িয়ে আছে ব্র্যান্ড পরামর্শ, বিপণন যোগাযোগ, সামাজিক যোগাযোগ, মিডিয়া পরিকল্পনা, পদক্ষেপ এবং পর্যবেক্ষণ, অডিওভিস্যুয়াল এবং প্রিন্ট প্রযোজনা, ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট, চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন, প্রেস, মুদ্রণ, সম্পাদকীয় এবং অনান্য জুড়ে।

আরও পড়ুন

মাছরাঙা প্রডাকশন লিমিটেড.

শাবাজপুর টি কোম্পানি লিমিটেড

শাবাজপুর টি কোম্পানি লিমিটেড এর বাংলাদেশে একটি জৈব বাগান রয়েছে যেখানে সত্যইকারভাবেই জৈব চর্চা করা হয়। বর্তমানে এটি জার্মান ভিত্তিক সংগঠন 'Lacon' এর তত্বাবধানে আছে জৈব সার্টিফিকেশন এর জন্য। এই বাগানের মোট আয়তন 1167,35 হেক্টর যার অধিকাংশই বড় পাহাড়ে আবর্ত। চা এই বাগানের পাহাড় ঢালে চাষ করা হয় । চা ছাড়াও এই বাগান রয়েছে রাবার, আগর, ফলের বাগান, হ্রদ, ইত্যাদি। বিপুল জীববৈচিত্র্য সহ প্রাকৃতিক বন বাগানের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য বাড়িয়ে দিয়েছে। মৌলিক চাহিদার পাশাপাশি চা শ্রমিকদের ইটের ঘর, সৌর বিদ্যুৎ, চিকিৎসা, শিক্ষা, বিনোদন নিশ্চিত করা হয়েছে। চায়ের স্বাদ এবং ঘ্রান অটুট রেখে চা শ্রমিকরা আনন্দের সাথে পাহাড়ি বাগান থেকে চা সংগৃহীত করে।

এইজিস সার্ভিসেস লিমিটেড

এইজিস সার্ভিসেস লিমিটেড স্কয়ার গ্রুপের একটি অঙ্গসংগঠন। এটি দেশের একটি অন্যতম সেবা প্রদানকারি কোম্পানী। এইজিস সার্ভিসেস লিমিটেড 01 মার্চ 1999 থেকে তার যাত্রা শুরু করে । এইজিস মানে দুর্ভেদ্য সুরক্ষা বা ঢাল । এইজিস সরবরাহিত পরিষেবাগুলির মধ্যে রয়েছে অফিস, কারখানা ও বাসভবনে জীবন ও সম্পদের দৈহিক নিরাপত্তা; হাউস সার্ভিস (পরিষ্কারের) রাখা; প্যাকেজ পরিষ্কার; এক্সটার্নাল গ্লাস পরিষ্করণ; কীটপতঙ্গ নিয়ন্ত্রণ; সরঞ্জাম সেবা; কন্ট্রোল ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা; সার্ভে, অ্যাসেসমেন্ট এবং নিরাপত্তা পরিকল্পনার নকশা; সিকিউরিটি তদন্ত; ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট ইত্যাদি।

আরও পড়ুন

স্কয়ার কলেজ অফ নার্সিং

স্কয়ার কলেজ অফ নার্সিং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক অনুমোদিত একটি রেজিস্টার্ড কলেজ । গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত এবং বাংলাদেশ নার্সিং কাউন্সিল কর্তৃক স্বীকৃত।

আরও পড়ুন

আমাদের একনিষ্ঠ কর্মীরা আমাদের প্রধান সম্পদ।

আমাদের জনগণ

স্কয়ার টয়লেট্রিস লিমিটেড তৈরি করেছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সম্পদ আর তা হচ্ছে জনগণ। এ কারনেই এখানে কাজ করা এতটা আকর্ষণীয় সবার কাছে। স্কয়ার টয়লেট্রিস লিমিটেড বিশ্বাস করে যে কর্মস্থল শুধুমাত্র প্রতিদিনের কাজ করার জায়গা থেকে আরও বেশি কিছু। এটি অবশ্যই হবে অনুসন্ধান, ব্যাক্তিগত প্রতিভা এবং পেশাদার দক্ষতা প্রকাশের মাধ্যম। যা উৎসাহিত এবং প্ররচিত করে থাকে অসাধারন কোন কিছু অর্জনের ক্ষেত্রে। স্কয়ার টয়লেট্রিস লিমিটেড তার কর্মচারীদের কর্মদক্ষতায় গর্বিত। সর্বপরি প্রতিভা, দক্ষতা, জ্ঞান, অভিজ্ঞতা এবং আমাদের মানুষের আবেগের সংমিশ্রণ আমাদেরকে সৃষ্টি করেছে। 

এখানে সাবস্ক্রাইব করুন